Home Page Top

গুগল সার্চ কনসোল কী? কিভাবে ওয়েবসাইট সাবমিট করে?

গুগল সার্চ কনসোল হলো গুগলের একটি ফ্রি সেবা যার মাধ্যমে আপনি মূলত গুগলে আপনার ওয়েবসাইটের উপস্থিতি সম্পর্কে ভিজিটরদেরকে জানাতে পারবেন। ধরুন আপনি একজন পরিক্ষার্থী; পরীক্ষা অনেক ভালো দেওয়া সত্ত্বেও ভুলে খাতা খাতা জমা না দিয়ে বের হয়ে গেছেন। সেক্ষেত্রে কি আপনি কোন ফলাফলের আশা করতে পারেন? একইভাবে আপনার সাইটে যত ইউনিক কনটেন্ট থাকুক না কেন সেগুলো গুগলে প্রদর্শন করাতে চাইলে অবশ্যই সাইটম্যাপ গুগলে সাবমিট করতে হবে। আজকে আমরা গুগল সার্চ কনসোলে ওয়েবসাইট কিভাবে সাবমিট করে সেটি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করবো। 

সার্চ কনসোলে ওয়েবসাইট সাবমিট করার নিয়ম

প্রথমে আপনাকে গুগলে যেতে হবে। এরপর google search console লিখে সার্চ করবেন অথবা সরাসরি এই লিংকে গিয়েও কাজ করতে পারবেন। এরপরে Start Now লেখাতে ক্লিক করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি যে ইমেইল আইডি দিয়ে ক্রোম ব্রাউজারে লগ ইন করা সেটি দিয়েই আপনার একাউন্ট তৈরি হবে। আর যদি আপনি আগে থেকেই সার্চ কনসোল ব্যবহার করে থাকেন তবে আপনার আগের ব্যবহার করা ইন্টারফেসটি শো করবে।
দুই ক্ষেত্রেই নিয়ম একই, তবে আগে ব্যবহার করে থাকলে শুধু সাইটের পাশে থাকা ড্রপ ডাউন বাটনে ক্লিক করে "Add property" অপশনে ক্লিক করবেন। এরপর নিচের ছবির মত দুইটি অপশন দেখতে পাবেন। ১ম অপশনে আপনার সাইট এড করলে ডোমেইনের এডমিন প্যানেল থেকে DNS সেটিংসে কাজ করতে হবে যেটা বিগেইনারদের জন্য কিছুটা কঠিন। তবে ২য় পদ্ধতি খুব সহজ এবং বেশির ভাগ মানুষ এভাবেই করে থাকে। URL prefix এই অপশনটির নিচে আপনার সাইটের url পেস্ট করতে হবে। URL এর গঠন এমন হবে https://www.admissiontune.com বা https://www.xyz.blogspot.com - এইভাবে টাইপ করার পর continue লেখায় ক্লিক করবেন। 
এখন আপনাকে ডোমেইন ভেরিফাই করার জন্য ৫টি অপশন দেওয়া হবে। এটি যে আপনার ডোমেইন সেটি গুগল শতভাগ নিশ্চিত হতেই এই ধাপটি অনুসরণ করে থাকে। আপনি আপনার ইচ্ছানুযায়ী যেকোনো একভাবে ভেরিফাই করতে পারবেন। আমরা সহজ ২ টি অপশনের কোনটি দিয়ে কিভাবে ভেরিফাই করবেন সেটার নিয়ম বলে দিচ্ছি। 

২য় অপশনটি সব থেকে সহজ। এক্ষেত্রে আপনাকে এমন একটি কোড দিবে "<meta content='GOOGLE VERIFICATION CODE' name='google-site-verification'/>"। GOOGLE VERIFICATION CODE - এই লেখাটির জায়গায় আপনি একটা ইউনিক কোড দেখতে পাবেন। এটিকে আপনার থিমের <head> অংশের নিচে পেস্ট করতে হবে। এরপর সেইভ থিমে ক্লিক করবেন। এবং গুগল সার্চ কনসোল ড্যাশবোর্ডে গিয়ে Verify তে ক্লিক করলেই আপনার ডোমেইনটি ভেরিফাই হয়ে যাবে। 
৩য় অপশনটিও ডোমেইন ভেরিফাই করার জন্য খুব সহজ। এক্ষেত্রে যদি আপনি গুগল এনালিটিকস ব্যবহার করে থাকনে এবং সেটির কোড আপনার থিমে ইতোমধ্যে সেইভ করা থাকে তাহলে "Google analitycs" লেখার পাশে ড্রপ ডাউন মেনুতে ক্লিক করে ভেরিফাইতে ক্লিক করবেন। তখন গুগল বট আপনার থিমে এনালিটিক কোড দেখেই ভেরিফাই করে নিবে। 
তবে যারা গুগল ট্যাগ ম্যানেজার ব্যবহার করেন তার আরও সহজে সেটির মাধ্যমে ভেরিফাই করতে পারবেন। এটিও অনেক সহজ প্রসেস। 
মালিকানা ভেরিফাই করার পর সাধারণত ২৪ ঘণ্টা পর আপনার সাইটের সকল তথ্য গুগল সার্চ কনসোলের ড্যাশবোর্ডে দেখতে পাবেন। তবে কোন কোন ক্ষেত্রে এটি আরও বেশি সময় নিতে পারে। 

কিভাবে সাইটম্যাপ সাবমিট করে?

এখন আরেকটি গুরুত্বপূর্ন অংশ হলো ওয়েবসাইটের সাইটম্যাপ গুগল সার্চ কনসোলে সাবমিট করা। আগে এটির গুরুত্ব বুঝে নিন। ধরুন আপনি কোন বড় অচেনা শহরে গেলেন সেখানের রাস্তায় ম্যাপ দেওয়া থাকলে আপনার জন্য কোন এলাকা খুঁজে পেতে সহজ হবে নাকি ম্যাপ দেওয়া না থাকলে? অবশ্যই ম্যাপ দেওয়া থাকলে। একইভাবে আপনি সাইটম্যাপ সাবমিট করার মাধ্যমে গুগল বটের জন্য ক্রাউল করার কাজটি সহজ করে দিচ্ছেন। 
সাইট ম্যাপ সাবমিট করার জন্য প্রথমেই আপনাকে যেকোনো ওয়েবসাইট থেকে সাইট ম্যাপ তৈরি করে নিতে হবে। এই লিংকে গিয়ে আপনি সহজেই সাইটম্যাপ তৈরি করে নিতে পারবেন। তাছাড়া চাইলে আমাদের এটিকেও ব্যবহার করতে পারেনঃ 

User-agent: *
Disallow: /search
Allow: /
Sitemap: http://xyz.com/atom.xml?redirect=false&start-index=1&max-results=500

এখানে শুধু xyz এর জায়গায় আপনার সাইটের নামটি দিয়ে দিবেন। যদি blogspot হয় তবে সেটিও এড করে নিবেন। এটিকে আপনার ব্লগার সেটিংসের custom robot.txt অংশে পেস্ট করে সেইভ করবেন। এখানে কোন রকমের পরিবর্তন করা যাবে না। যদি আপনার মত পোস্টের সংখ্যা ৫০০ এর বেশি হয় তখন max-results=500 এর জায়গায় 1000 দিয়ে দিবেন। 
এবার সার্চ কনসোলের ড্যাশবোর্ডে আসবেন। এখানে Index এর নিচে Sitemaps অপশনে ক্লিক করতে হবে। এরপরে "http://xyz.com/atom.xml?redirect=false&start-index=1&max-results=500" এই পুরো লেখাটি Enter sitemap URL লেখা অংশে পেস্ট করতে হবে এবং সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। তবে এইক্ষেত্রে আপনি শুধুমাত্র sitemap.xml লিখে সাবমিট করলেও হবে। যদি আপনার কাজটি সঠিকভাবে হয় তবে নিচের ছবির মত ইন্টারফেস দেখতে পাবেন এবং স্ট্যাটাস লেখার নিচে সাকসেস লেখাটি শো করবে। 
তবে সাইটম্যাপ সাবমিট করার ক্ষেত্রে প্রথম পদ্ধতিকেই অনুসরণের পরামর্শ দিবো। কারণ এক্ষেত্রে গুগল বট আপনার নতুন পোস্ট সম্পর্কে আপডেট পেয়ে যাবে আর sitemap.xml সাবমিট করলে গুগল বটকে নতুন পোস্ট খুঁজে নিতে হবে অর্থাৎ সরাসরি কোন আপডেট পাচ্ছে না। ১ম পদ্ধতি অনুসরণ করলে গুগলে পোস্ট ইনডেক্স হতে কম সময় লাগবে।
সাইটম্যাপ গুগল সার্চ কনসোলে সাবমিটের আগে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। 
১. কনটেন্টবিহীন সাইট সাবমিট করা যাবে না। কমপক্ষে ৫-৬টা ইউনিক কনটেন্ট লিখেই সাবমিট করতে হবে। 
২. সাইট  পুরোপুরি তৈরি না করেই সাবমিট করা যাবে না। 
৩. ব্লগার থিমে canonical ট্যাগ আছে কিনা চেক করে নিতে হবে। নতুবা প্লেজিয়ারিজম ও ডুপ্লিকেট ইউআরএল ইস্যু আসবে।
পর্যালোচনাঃ এখানে গুগল সার্চ কনসোলে ওয়েবসাইট ও সাইটম্যাপ সাবমিট করার প্রক্রিয়া সহজে বুঝানোর চেষ্টা করেছি। তবে নতুনদের ক্ষেত্রে সমস্যা হওয়াটা স্বাভাবিক। যেকোনো সমস্যার সম্মুখীন হলে কমেন্ট করে জানান আমরা সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো। 
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.
  1. বিং সার্চ কনসোলেরটা দিলেও ভাল হবে। অনেক উপকৃত হয়েছি।

    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. শীঘ্রই এই পোস্টের সাথে যুক্ত করে দেওয়া হবে। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

      মুছুন

Top Post Ad

Below Post Ad

Ads Area