এডমিশন টিউন https://www.admissiontune.com/2021/07/chemistry-shortcut-technique.html

রসায়ন শর্টকাটঃ রসায়ন মনে রাখার টেকনিক

রসায়ন শর্টকাট পর্বে সবাইকে স্বাগতম। বিজ্ঞান বিভাগের বেশির ভাগ শিক্ষার্থীদের কাছে রসায়ন খুবই মজার একটি বিষয়। কারণ এখানে ধরা বাধা নিয়মের বাইরে নিজের মত করে শিক্ষার্থীরা লিখতে পারে। একই বিক্রিয়া বিভিন্ন উপায়ে করার মাধ্যমে তাদের সৃজনশীল মনোভাব বৃদ্ধি পায়। কিন্তু রসায়নে অন্যদের থেকে এগিয়ে থাকার জন্য কিছু শর্টকাট টেকনিক জানা আবশ্যক। সেগুলো ধারাবাহিকভাবে এখানে দেওয়া আছে।  
রসায়ন শর্টকাটঃ রসায়ন মনে রাখার টেকনিক, জারণ-বিজারণ মনে রাখার টেকনিক, লবণ সেতুর কাজ মনে রাখার টেকনিক, হেটারোসাইক্লিক যৌগের উদাহরণ মনে রাখার কৌশল, কিছু পলি নিউক্লিয়ার যৌগ মনে রাখার টেকনিক, ক্লোরিন (Cl) এর সব ব্যবহার মনে রাখার টেকনিক, পর্যায় সারণী মনে রাখার সহজ কৌশল, ইলেক্ট্রন আকর্ষী বিকারক, Fe (আয়রন) এর আকরিকসমূহ মনে রাখার কৌশল, ক্ষারধর্মী অ্যামাইনো এসিডগুলোর নাম মনে রাখার টেকনিক, অ্যারোমেটিক যৌগ মনে রাখার টেকনিক, হাইড্রোজেন বর্ণালীতে বিভিন্ন রেখার উৎপত্তি মনে রাখার টেকনিক, ঊর্ধ্বপাতিত পদার্থ মনে রাখার উপায়, অস্থায়ী মূলকণিকা মনে রাখার উপায়, ধাতুর সক্রিয়তা সিরিজ মনে রাখার উপায়,

জারণ-বিজারণ মনে রাখার টেকনিক

টেকনিক-০১ঃ

ছন্দঃ জাগ্রত বিদ্ধান

জা গ্র → জারক গ্রহণ
বি দ → বিজারক দান
এখানে ইলেক্ট্রন গ্রহণ করলে জারক হয় এবং ইলেক্ট্রন দান করলে বিজারক হয়। জারণ-বিজারণের ক্ষেত্রে ঠিক এর উল্টো ঘটে। 

টেকনিক-০২ঃ

জারণ হয়ঃ
মাইনাস মাইনাস হলে অর্থাৎ ঋনাত্মক ইলেক্ট্রন ত্যাগ হলে বা মাইনাস হলে জারণ হয়। প্লাস প্লাস হলে অর্থাৎ ধনাত্মক প্রোটন সংযোগ হলে বা যোগ হলে জারণ হয়।

বিজারণ হয়ঃ
মাইনাস প্লাস হলে প্লাস মাইনাস হলে। অর্থাৎ,ঋনাত্মক ইলেক্ট্রন সংযোগ হলে বা যোগ হলে বিজারণ হয় এবং ধনাত্মক প্রোটন ত্যাগ বা মাইনাস হলে বিজারণ হয় ।

টেকনিক-০৩ঃ 

জোবি জোরা
জো বি → যোজ্যতা বৃদ্ধি পেলে = জারণ
জো রা → যোজ্যতা হ্রাস পেলে = বিজারণ
যারা জারণ-বিজারণ বিক্রিয়া নিয়ে প্রায়ই আমাদের ঝামেলা লাগে তাই এখানে ৪টি সংজ্ঞা দেওয়া হলো। 
জারণ কাকে বলে? 
যে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় কোনো অণু, পরমাণু বা আয়ন এক বা একাধিক ইলেকট্রন ত্যাগ করে তাকে জারণ বলে। জারণেরঅর্থ ইলেকট্রন ত্যাগ। 
বিজারণ কাকে বলে? 
যে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় কোনো অণু, পরমাণু বা আয়ন এক বা একাধিক ইলেকট্রন গ্রহণ করে তাকে বিজারণ বলে। বিজারণের অর্থ ইলেকট্রন গ্রহণ। 
জারক পদার্থ কাকে বলে?
যে পদার্থ রাসায়নিক বিক্রিয়া কালে অন্য পদার্থকে জারিত করে নিজে বিজারিত হয় তাকে জারক পদার্থ বলে।
বিজারক পদার্থ কাকে বলে?
রাসায়নিক বিক্রিয়ার সময় যে পদার্থ অন্য পদার্থকে বিজারিত করে নিজে জারিত হয় তাকে বিজারক পদার্থ বলে। 

এলকিনের বিক্রিয়া মনে রাখার কৌশল

অ্যালকিনের বিক্রিয়া মনে রাখার জন্য একটি মাত্র ইংরেজি শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। এলকিন কোন কোন বিক্রিয়া দেয় এটি থেকে পরীক্ষায় প্রায়ই প্রশ্ন আসে। 

PROPOSE

PRO - প্রতিস্থাপন
P - পলিমারকরণ
O - ওজনীকরণ
S - সংযোজন/যুত
E - ইলেক্ট্রন ত্যাগ (জারণ) 
অ্যালকিন হচ্ছে অসম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন যে জৈব যৌগের কার্বন শিকলে অন্তত একটি কার্বন-কার্বন দ্বিবন্ধন >C=C<) থাকে তাকে অ্যালকিন বলে অ্যালকিনের সাধারণ সংকেত CnH2n। 

লবণ সেতুর কাজ মনে রাখার টেকনিক

সেতু ভেনিস
সেতু = লবণ সেতু
ভে = ভারসাম্য রক্ষা
নি = নিরেপেক্ষতা
স = সংযোগ রক্ষা

হেটারোসাইক্লিক যৌগের উদাহরণ মনে রাখার কৌশল

পাপি টাকে ফিথাই বাধ
পা = পাইরল
পি = পিরিডিন
টাকে = টেট্রাহাইড্রোফিউরান
ফিথাই = ফিউরান, থায়োফিন, ইথিলিন, ইথলিন, আক্সাইড 

কিছু পলি নিউক্লিয়ার যৌগ মনে রাখার টেকনিক

ডাই নাকে আন
ডাইঃ ডাইফিনাইল
নাকেঃ ন্যাপথালিন
আনঃ এনথ্রাসিস

ক্লোরিন (Cl) এর সব ব্যবহার মনে রাখার টেকনিক

জী আন্টি, আপনি হাতি কাঁদুনে বোরিং কিপ্টা পঁচা 

জী = জীবাণু নাশক
আন্টি = এন্টিনক তরল
আপ নি = অগ্নি নির্বাপক
হা তি = হিমায়ক তরল
কাঁদুনে = কাঁদুনে গ্যাস
বোরিং = বিরঞ্জক
কিপ্টা = কীটনাশক
পঁচা = পচন নিবারক
আরও দেখতে পারেনঃ

পর্যায় সারণী মনে রাখার সহজ কৌশল

মনে রাখবেন, পর্যায় সারণী আপনাকে যেকোন উপায়ে মনে রাখতেই হবে। আপনি রসায়ন বিষয়ে দক্ষ হতে চাইলে পর্যায় সারণির প্রথম ৩০টি মৌলের নাম, সংকেত, পারমাণবিক ভর, যোজনী মনে রাখা আবশ্যক। তবে এইচএসসি লেবেলের শিক্ষার্থীদের জন্য তড়িৎ ঋণাত্মকতা, মৌলের ধর্ম, বন্ধন প্রকৃতি, পোলার না অপোলার এগুলোও মনে রাখা লাগবে। পর্যায় সারণীতে দক্ষ হলে যেকোনো বিক্রিয়ার সমাধান করা আপনার জন্য সহজ হয়ে যাবে। 

গ্রুপ 1A: হালিনাকে রুবি সাজাবে ফ্রান্সে
হা - H 
লি- Li 
না - Na 
কে - K 
রুবি - Rb 
সাজাবে - Cs 
ফ্রান্সে - Fr
গ্রুপ 2A: বিরিয়ানি মোগলাই কাবাব সরিয়ে বাটিতে রাখো  
বিরিয়ানি - Be 
মোগলাই - Mg 
কাবাব - Ca 
সরিয়ে - Sr 
বাটিতে - Ba 
রাখো - Ra
গ্রুপ 3A: বর এলো গালিচায় ইন্ডিয়ান ট্রলিতে
বর - B 
এলো - Al 
গালিচায় - Ga 
ইন্ডিয়ান - In 
ট্রলিতে - Tl
গ্রুপ 4A: কায়রো শহরে গেলে স্বর্ণ পাবে 
কায়রো - C 
শহরে - Si 
গেলে - Ge 
স্বর্ণ - Sn 
পাবে - Pb
গ্রুপ 5A: নলকূপের পানিতে আর্সেনিক সমস্যা বিদ্যমান 
নলকূপের - N 
পানিতে - P 
আর্সেনিক - As 
সমস্যা - Sb 
বিদ্যমান - Bi
গ্রুপ 6A: ও এসএসসি তে পড়ে 
ও - O 
এসএস - S 
সি - Se 
তে - Te 
পড়ে - Po
গ্রুপ 7A: ফুলের কলিতে ভ্রমর আসলো আবারও
ফুলের - F 
কলিতে - Cl  
ভ্রমর - Br
আসলো - I 
আবারও - At
নিষ্ক্রিয় গ্যাসঃ হেনা আর করিম যাবে রমনায় 
হে - He
না - Ne
আর - Ar
করিম - Kr
যাবে - Xe
রমনায় - Rn
মুদ্রা ধাতু মনে রাখার কৌশলঃ কথা ছিল আসবে রানী 
কথা - Cu
ছিল - Ag
আসবে - Au
রানী - Rg
উপধাতু/ অর্ধধাতু মনে রাখার কৌশলঃ সবাই সাবধান বিগ বস আসিতেছে
সবাই - Si
সাবধান - Sb
বি - Bi
গ - Ge
বস - B
আসি - As
তেছে - Te
নরম ধাতু মনে রাখার কৌশলঃ পাবে না কাকে? 
পাবে - Pb
না - Na
কা - Ca
কে - K
পর্যায়-2
Li Be B C N O F Ne
লি বেন? বেনী চুড়ি? নিপস্টিক ও ফা ইন
পর্যায়-3
Na Mg Al Si P S Cl Ar
না! মগা আলু ছিলতে পারে সব কিলি য়ার
পর্যায়-4
Sc Ti V Cr Mn Fe Co Ni Cu Zn
স্কুল টি ভাঙায় চেয়ার ম্যান ফের কমিশন নিয়ে কাজে যাচ্ছেন
পর্যায়-5
Y Zr Nb Mo Tc Ru Rh Pd Ag Cd
ইওর জ্বর নামবে মন টাকে আরো রেস্ট-হতে দাও পারলে আগে কাঁদো
ল্যান্থানাইডঃ
Ce Pr Nd Pm Sm Eu Gd Tb Dy Ho Er Tm Yb Lu
ছেলের প্রীতি এন্ড প্রেম সমানইউরোপ গুড তবে ডাইরিয়া হয় এর টমেটো ইয়লো ব্লু
অ্যাক্টিনাইডঃ
Th Pa U Np Pu Am Cm Bk Cf Es Fm Md No Lr
থাকলে পাশে ইউএনপি পুঁথি আমার কমেনা বিকেলে ক্যাফেতে এসে এফ এম মোডে নুডলস লাড়ি

ইলেক্ট্রন আকর্ষী বিকারক

যে সকল বিকারক ইলেক্ট্রন প্রিয় অর্থাৎ বিক্রিয়া কালে ইলেক্ট্রন গ্রহন করে তাকে ইলেক্ট্রন আকর্ষী বিকারক বলে । ইহা দুই প্রকার। যথাঃ 

১. ধনাত্বক ইলেক্ট্রোফাইল

২. প্রশম ইলেক্ট্রোফাইল

ধনাত্বক ইলেক্ট্রোফাইল মনে রাখার উপায় -
কাকার নানা বাড়ীর পাশে হাটছে
কা - কার্বোনিয়াম আয়ন (R+
কা - কার্বোক্যাটায়ন (.CH3+)
না - নাইট্রোনিয়াম আয়ন (NO2+)
না - নাইট্রোসোনিয়াম আয়ন (NO+)
বাড়ীর - ব্রোমিয়াম (Br+)
পাশে - প্রোটন (H+)
হাটছে - হাইড্রোনিয়াম (H3O+)

Fe (আয়রন) এর আকরিকসমূহ মনে রাখার কৌশল

মাগো, লিসারে ফিরে পেতে চাই 
মাগো = ম্যাগনেটাইট
লি = লিমোনাইট
সা = সাইডেরাইট
রে = রেড হিমাটাইট
ফিরে = Fe (এই আকরিকগুলো যে আয়রনের = সেটা মনে রাখার জন্য)
পেতে = পাইরাইটস

ক্ষারধর্মী অ্যামাইনো এসিডগুলোর নাম মনে রাখার টেকনিক

লাইলি আর হিমেলের প্রেম খাঁটি

লাইলি - লাইসিন
আর - আরজিনিন
হিমেল - হিস্টিডিন
প্রেম - প্রোলিন
খাঁটি - ক্ষারধর্মী। এই অ্যামাইনো এসিডগুলো যে ক্ষারধর্মী সেটা "খাঁটি" শব্দটি থেকে মনে রাখবে ।

অ্যারোমেটিক যৌগ মনে রাখার টেকনিক

হাকেল নিয়মের পরিবর্তে অ্যারোমেটিক যৌগ রের করার একটা সুন্দর টেকনিক

n=(x-1)/2
এখানে, x = পাইবন্ধনের সংখ্যা বা দ্বি বন্ধনের সংখ্যা 
n এর মান = পূর্ণ সংখ্যা হলে,অ্যারোমেটিক যৌগ 
n এর মান = ভগ্নাংশ হলে অ্যারোমেটিক যৌগ নয় 
Example: বেনজিনে পাই বন্ধন তিনটি 
n= (3-1)/2 = 1
n এর মান একটি পূর্ণ সংখ্যা তাই বেনজিন অ্যারোমেটিক যৌগ 

হাইড্রোজেন বর্ণালীতে বিভিন্ন রেখার উৎপত্তি মনে রাখার টেকনিক

লাইলির বাবার পাশে ব্রাজিলের ফুটবলার
লাইলি - লাইমেন সিরিজ
বাবার - বামার সিরিজ
পাশে - প্যাশ্চেন সিরিজ
ব্রাজিলের - ব্রাকেট সিরিজ
ফুটবলার - ফুনড সিরিজ 

ঊর্ধ্বপাতিত পদার্থ মনে রাখার উপায়

বাংলার কোথাও আমাদের নিশাদ নেই
বাংলার - বেনজোয়িক এসিড
কোথাও - কর্পূর
আমাদের - আয়োডিন
নিতু - নিশাদল
নেই - ন্যাপথালিন

অস্থায়ী মূলকণিকা মনে রাখার উপায়

নিউটন গ্রামের আন্টির মেয়ের প্রেমে ব্যস্ত
নিউটন - নিউট্রনো
গ্রামের - গ্রাভিটন
আন্টির - অ্যান্টিনিউট্রনো
মেয়ের - মেসন
প্রেমে - পজিট্রন
ব্যস্ত - বোসন 

ধাতুর সক্রিয়তা সিরিজ মনে রাখার উপায়

লিকে কানা ম্যাকাইভার এলো যেন ফিরে পাবে হায় কাপুরুষ হাবলু আজি পেটাবে আমায়
লি - Li (লিথিয়াম)
কে - K (পটাশিয়াম)
কা - Ca (ক্যালসিয়াম)
না - Na (সোডিয়াম)
ম্যাকাইভার - Mg (ম্যাগনেশিয়াম)
এলো - Al (অ্যালুমিনিয়াম)
যেন - Zn (জিংক)
ফিরে - Fe (আয়রন)
পাবে - Pb (লেড)
হায় - H (হাইড্রোজেন)
কাপুরুষ - Cu (কপার)
হাবলু - Hg (মার্কারি)
আজি - Ag (সিলভার)
পিটাবে - Pt (প্লাটিনাম)
আমায় - Au (গোল্ড)
পর্যায় সারণির ধাতব মৌলসমূহকে তাদের বিক্রিয়ার হারের উপর নির্ভর নিম্নক্রম অনুসারে সাজালে যে সিরিজ পাওয়া যায় তাকে ধাতুর সক্রিয়তা সিরিজ বলে।
ধাতুসমূহ ইলেকট্রন ছেড়ে দিয়ে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে। কিন্তু সকল ধাতু একই হারে বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে না। যে ধাতু যত সহজে ইলেকট্রন ছেড়ে দিয়ে বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে সে ধাতু তত বেশি সক্রিয়। আবার কোন ধাতুর শক্তিস্তরের সংখ্যা যত বেশি এবং যোজ্যতা ইলেকট্রন যত কম হবে সে ধাতুর সক্রিয়তা তত বেশি হবে। অধিক সক্রিয় ধাতুকে সক্রিয়তা সিরিজের উপরে রেখে ধাতুসমূহকে তাদের সক্রিয়তার নিম্নক্রম অনুসারে সাজানো হয়।
ধাতুর সক্রিয়তা সিরিজ নিম্নরূপঃ
Li > K > Ca > Na > Mg > Al >Zn > Fe >Pb > Sn > Cd > H >Cu > Hg > Ag > Pt > Au.

এখানে আমরা রসায়নের মোটামুটি অনেকগুলো শর্টকাট ও মনে রাখার টেকনিক নিয়ে আলোচনা করেছি। আপনি যদি কাঙ্ক্ষিত টেকনিক খুঁজে না পান তাহলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করবো সেটি বের করে দেওয়ার। আর পোস্টটিতে কোথাও ভুল ত্রুটি পরিলক্ষিত হলে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

শেয়ার করুনঃ

21 Comments

Please read our Comment Policy before commenting. ??

  1. জৈব যৌগের জন্য কোন শর্টকাট থাকলে দিয়েন ভাই।

    উত্তরমুছুন
  2. ভালো লাগলো, ধন্যবাদ ❣️❣️

    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. আপনাকেও ধন্যবাদ। পরবর্তীতে কোন টপিকে পোস্ট চান জানাবেন।

      মুছুন
  3. উত্তরগুলি
    1. না ভাইয়া। আপনি চাইলে প্রিন্ট অপশনে ক্লিক করে 'save as pdf' আকারে সেইভ করার মাধ্যমে পিডিএফ ফাইলে কনভার্ট করতে পারেন।

      মুছুন
  4. তড়িৎ ঋণাত্নকতা
    ইলেকট্রন আসক্তি দিলে ভালো হয়।

    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. ওকে ভাইয়া এড করে দিবো। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

      মুছুন
  5. অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া

    উত্তরমুছুন
  6. ধন্যবাদ,, এটা দরকার ছিল 😌🤍

    উত্তরমুছুন
  7. অনেক হেল্পফুল পোস্ট, ধন্যবাদ ভাইয়া।

    উত্তরমুছুন
  8. সুন্দর।৷ আরো অন্যান্য বিষয়ে চাই

    উত্তরমুছুন
  9. ধাতুর সক্রিয়তার সিরিজে Fe এর পর Sn হবে না???

    উত্তরমুছুন

এডমিশন টিউন কী?